ত্রিপক্ষীয় শান্তিচুক্তিতে সই করল ভারতের উলফা

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

ওয়াশিংটননিউজ টিভি, গৌহাটি (আসাম), শুক্রবার,২৯ ডিসেম্বর ২০২৩:প্রায় পাঁচ দশকের বিরোধের ইতি টেনে অবশেষে ত্রিপক্ষীয় শান্তিচুক্তিতে সই করল ভারতের সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন উলফা। শুক্রবার দিল্লিতে আসামের এই সশস্ত্র গোষ্ঠীর আলোচনাপন্থী অংশ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের উপস্থিতিতে শান্তিচুক্তিতে স্বাক্ষর করে। তবে এই শান্তিচুক্তির বিরোধিতা করেছে উলফার পরেশ বড়ুয়া গোষ্ঠী। দেশটির গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

আসাম রাজ্যের সরকারের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চুক্তির শর্ত অনুযায়ী, আসামের উন্নতিতে অনুপ্রবেশকারী রুখতে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এ ছাড়াও উলফা নেতৃত্বকে স্থানীয় বাসিন্দাদের জমির অধিকার দেওয়া এবং আসামের উন্নতির জন্য কেন্দ্রীয় অনুদান দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

শান্তিচুক্তির পর অমিত শাহ সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, নির্দিষ্ট সময়ে উলফার সব যৌক্তিক দাবি মেনে নেবে সরকার। উত্তর-পূর্ব ভারতের উন্নতির জন্য নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন সরকারের ওপরেও আস্থা রাখার জন্য উলফা নেতৃত্বকে অনুরোধ জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

শুক্রবার অমিত শাহের পাশে বসে আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানান, উলফার সঙ্গে শান্তিচুক্তি আসামের বড় অংশে শান্তি এবং স্থিতাবস্থা ফিরিয়ে আনবে। আগেই আলোচনাপন্থী উলফা নেতৃত্বে একপ্রস্ত কথা এগিয়ে রেখেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার শান্তিচুক্তি সম্পাদিত হলো।

আনন্দবাজার অনুসারে, আলাদা আসাম রাষ্ট্র গঠনের দাবিতে উলফার সশস্ত্র আন্দোলনে এক সময় উত্তাল হয়েছিল আসাম।

পরে অবশ্য ক্রমশ গুরুত্ব হারাতে থাকে সংগঠনটি। আগেই ভারত সরকার উলফাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিল। পরে পুলিশি অভিযানে উলফার বহু সদস্য আত্মসমর্পণ করেন।
সম্প্রতি আলোচনাপন্থী উলফার সাধারণ সম্পাদক অনুপ চেতিয়া জানিয়েছিলেন, শিগগিরই উলফার সঙ্গে শান্তিচুক্তি সম্পন্ন হবে কেন্দ্রীয় সরকার ও রাজ্য সরকারের। ভেঙে দেওয়া হবে উলফাও।

তবে উলফার পক্ষ থেকে ১৯৭১ সালের বদলে আসামে বিদেশি শনাক্তকরণের ভিত্তিবর্ষ ১৯৫১ সাল করার শর্ত রাখা হয়েছিল। শুক্রবার কোন শর্তে শান্তিচুক্তি হলো, তা এখনো পুরো স্পষ্ট নয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

Recent Comments

No comments to show.